রবিবার, ২২ মে ২০২২, ০৪:০৯ অপরাহ্ন
ঘোষনা
ময়মনসিংহের ভালুকায় সরকারী গার্লস হাইস্কুলের নতুন ভবনের  ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন। সোনাপুর আনন্দ বাজারে সেই অগ্নিকান্ডের ক্ষতিগ্রস্ত দের মাজে এমপি মোহাদয়ের পক্ষ থেকে নগদ অর্থ প্রদান করেন ইউপি চেয়ারম্যান মিশু হাওলাদার। ফরিদগঞ্জে স্ত্রীর মর্য‍াদার দাবিতে স্বামীর বাড়িতে বৃষ্টির অনশন ১২০ ভরি সোনা হয়ে গেলো মাদক, চাকরি হারালেন সেই এসপি গোমস্তাপুরে তিনদিন ব্যাপী কৃষি মেলার উদ্বোধন।  ময়মনসিংহে বিপুল পরিমাণ মাদক উদ্ধার ৫ জন রোহিঙ্গাসহ ৭ জন গ্রেফতার । সিরাজগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের কার্যকারী কমিটিতে কে এম নাছির উদ্দিন কে সদস্য মনোনীত রায়গঞ্জে ১৮ টি গাজার গাছ সহ গাঁজা চাষীকে আটক করেছে রায়গঞ্জ থানার পুলিশ আনোয়ারা ১১নং জুঁইদন্ডী গ্রামে দুই টি চিতা বাঘের  সন্ধান পাওয়া গেছে  নিয়ামতপুর প্রেসক্লাবের ঈদ পূর্নমিলনী অনুষ্ঠিত। 

আমতলীতে তিনজন কথিত চিকিৎসকে মোবাইল কোর্টে জরিমানা,মুচলেকা প্রদান।

আমতলী(বরগুনা)প্রতিনিধি
  • আপডেট টাইম : রবিবার, ১৬ জানুয়ারী, ২০২২
  • ২৯৭ বার পঠিত

বরগুনার আমতলী পৌর শহরের তিন ব্যক্তি (কথিত চিকিৎিসক)কেএম আসাদুজ্জামান জাফর,এলাহি মোল্লা ও কেশব চন্দ্র শীলকে অপচিকিৎসা, চিকিৎসা দেওয়ার বৈধতা না থাকার কারনে মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে ২০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে। ওই তিন ব্যক্তি আর কোন দিন কাউকে কোন প্রকার চিকিৎসা দিবে না বলে মুচলেকা প্রদান করেছে।ওই তিন ব্যক্তি আমতলী পৌর শহরের বিভিন্ন স্থানে ব্যক্তিগত চেম্বার বসিয়ে চিকিৎসার নামে সাধারণ মানুষকে অপচিকিৎসা দিয়ে আসছে।

জানা গেছে, গতকাল (শনিবার) সন্ধ্যায় আমতলী উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও ভ্রাম্যমান আদালতেন নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মোঃ নাজমুল ইসলাম আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক ডাঃ সুমন খন্দকার, ডাঃ তানজিরুল ইসলাম নেতৃত্বে থানা পুলিশের সহায়তায় চিকিৎসা দেওয়ার কোন প্রকার বৈধতা না থাকার মহিলা কলেজ রোড থেকে কেএম আসাদুজ্জামান জাফর, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সামনে থেকে এলাহি মোল্লা এবং আমতলী সরকারী কলেজের সামনে কেশব চন্দ্র শীলকে আটক করে। পরে তাদের চিকিৎসা দেওয়ার বৈধ কাগজপত্র যাচাই- বাচাই করা হয়। আটক তিন ব্যক্তির চিকিৎসা দেওয়ার কোন বৈধ কাগজপত্র না থাকায় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন ২০০৯ এর ৫৩ ধারায় নামধারী কথিত ডাঃ কেএম আসাদুজ্জামান জাফরকে ৫ হাজার, এলাহি মোল্লাকে ৮ হাজার ও কেশব চন্দ্র শীলকে ৭ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়। এসময় আটক ওই তিন ব্যক্তি এতদিন বিধি বর্হিভূত ভাবে সাধারণ মানুষকে যে চিকিৎসা দিয়ে আসছে তার জন্য দুঃখ ও ক্ষমা চেয়ে ভবিষৎতে আর কোন দিন চিকিৎসার নামে অপচিকিৎসা দিবেন না বলে নিজ হাতে মুচলেকা প্রদান করেন।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক ডাঃ সুমন খন্দকার বলেন, ওই তিন ব্যক্তির চিকিৎসা দেওয়ার কোন বৈধতাই নেই। অথচ তারা দীর্ঘদিন ধরে ব্যক্তিগত চেম্বার নিয়ে প্রকাশ্যে রোগী দেখছেন।

সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও ভ্রাম্যমান আদালতেন নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মোঃ নাজমুল ইসলাম বলেন, আটক তিন ব্যক্তিকে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন ২০০৯ এর ৫৩ ধারায় ২০ হাজার টাকা জরিমানা ও আর কোন দিন চিকিৎসা দিবে না বলে মুচলেকা প্রদান করেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর..
এই পত্রিকার সকল সংবাদ, ছবি ও ভিডিও স্বত্ত্ব সংরক্ষিত © ২০২১ দৈনিক মাতৃজগত    
কারিগরি সহযোগিতায়ঃ Bangla Webs
banglawebs999991