রবিবার, ২১ জুলাই ২০২৪, ১১:৪২ পূর্বাহ্ন
ঘোষনা
যশোরে বিদেশী পিস্তল, গুলি ও বার্মিজ চাকু সহ গ্রেফতার ০১ জন চাঁপাইনবাবগঞ্জে কোটা সংস্কারের দাবিতে শিক্ষার্থীদের মহাসড়ক অবরোধ করে  রংপুরে নিহত শিক্ষার্থী আবু সাঈদের দাফন সম্পন্ন দেশের সব স্কুল-কলেজ অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা গোমস্তাপুরে বিএমডিএ গোমস্তাপুর জোনাল অফিস ভবন নির্মাণ কাজের  শুভ উদ্বোধন  ফরিদপুর শহরের আদর্শ বালিকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ছাত্রীদের যৌন নিপীড়নের অভিযোগে কারাগারে মুরাদনগরে মাদককে “না” বলি সামাজিক সচেতনতা ও অপরাধমুক্ত সমাজ গড়ি কোটা আন্দোলনকারীদের বিরুদ্ধে মুক্তিযোদ্ধাদের মানববন্ধন ফরিদপুর মেডিকেলের পরিচালককে প্রত্যাহারের দাবিতে সড়ক অবরোধ ফরিদপুরে কিশোরীকে ধর্ষণের পর হত্যা সাত বছর পালিয়ে থেকেও শেষ রক্ষা হলো না সবুজের

গাজীপুরের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্কে স্ত্রী নীলগাই

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম : রবিবার, ১৯ নভেম্বর, ২০২৩
  • ১২৫ বার পঠিত

 

আলমগীর হোসেন সাগর গাজীপুর জেলা প্রতিনিধ : বিলুপ্ত প্রায় একটি স্ত্রী নীলগাই ঠাঁই পেয়েছে গাজীপুরের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারী পার্কে। ১৮ নভেম্বর শনিবার ভোর ৬টার দিকে এটিকে পার্কের কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে। কোয়ারেন্টাইন পর্যায় শেষ হওয়ার পর এটিকে সাধারণ বেষ্টনীতে উন্মুক্ত করে দেয়া হবে।

১৩ নভেম্বর সোমবার নীলগাইটি ঠাকুরগাঁও জেলার বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার ভারতের সীমানাঘেঁষা ফকিরভিটা গ্রামে স্থানীয় জনতার হাতে ধরা পড়ে। ধরা পড়ার সময় এর শরীরে একাধিক আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়। শারীরিকভাবেও কিছুটা দুর্বল ছিল।

এসব তথ্য নিশ্চিত করে পার্ক কর্তৃপক্ষ ঠাকুরগাঁয়ের ফকিরভিটাগ্রামবাসীর বরাত দিয়ে জানান, নীলগাইটি ভারত থেকে সীমান্ত পেরিয়ে প্রথমে শালডাঙ্গা গ্রামে প্রবেশ করে। পরে গ্রামবাসীর তাড়া খেয়ে পার্শ্ববর্তী ফকিরভিটা গ্রামে চলে যায়। সেখান থেকে গ্রামবাসীর সহায়তায় বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) সদস্যরা সেটিকে উদ্ধার করেন। সেটিকে স্থানীয় বন বিভাগের লোকজনের কাছে হস্তান্তর করা হলে তারা দিনাজপুরের রামসাগর চিড়িয়াখানায় নিয়ে যান। ১৬ নভেম্বর বৃহস্পতিবার পর্যবেক্ষনের জন্য পার্কের একটি প্রশিক্ষিত দল দিনাজপুরে পাঠানো হয়। তারা প্রাণীটির সার্বিক অবস্থা পর্যবেক্ষণ করে সাফারি পার্কে রাখার বিষয়ে মতামত দেন। সেখান থেকে বিশেষ ব্যবস্থাপনায় নীলগাইটিকে সাফারি পার্কে আনা হয়।

পার্ক কর্তৃপক্ষ জানায়, নিয়মানুযায়ী বন্য প্রাণী পার্কে আনা প্রাণীর অবস্থা পর্যবেক্ষণ করার জন্য ১৪ দিন কোয়ারেন্টিনে রাখতে হয়। কোয়ারেন্টিনে প্রাণীর শারীরিক পরীক্ষা-নিরীক্ষা চলে। প্রয়োজন হলে কোয়ারেন্টিন সময় বৃদ্ধি করা হয়। উপযোগিতা সম্পন্ন হলে সাধারণ বেষ্টনীতে উন্মুক্ত করে দেয়া হয়।

বিরল প্রজাতির বিলুপ্তপ্রায় একটি বন্য প্রাণী নীলগাই। একসময় বাংলাদেশের দনাজপুর, ঠাকুরগাঁও, নওগাঁ, জয়পুরহাটসহ বিভিন্ন জেলায় এই নীলগাইয়ের দেখা পাওয়া যেত। হরিণবিশেষ প্রাণীটি ‘গাই’ হিসেবে পরিচিত। কিন্তু এটি আসলে গরুশ্রেণির নয়। নীলগাইয়ের গড় আয়ু সাধারণত ২১ বছর।

বন্য প্রাণী ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগের (ঢাকা) বিভাগীয় বন কর্মকর্তা শারমীন আক্তার সাংবাদিকদের বলেন, নতুন আনা স্ত্রী নীলগাইটিসহ এখন এ প্রজাতির প্রাণীর সদস্য সংখ্যা ৯। এর আগেও পার্কটিতে নীলগাই প্রজাতির প্রাণী বেশ কয়েকবার বাচ্চা জন্ম দিয়েছে। বর্তমানে এদের মধ্যে সাতটি পুরুষ ও ২টি স্ত্রী। পর্যায়ক্রমে নীলগাইয়ের আরও বাচ্চা পাওয়া যাবে প্রত্যাশা করেন ওই কর্মকর্তা।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর..
এই পত্রিকার সকল সংবাদ, ছবি ও ভিডিও স্বত্ত্ব সংরক্ষিত © ২০২১ দৈনিক মাতৃজগত    
কারিগরি সহযোগিতায়ঃ Bangla Webs
banglawebs999991