মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ০৫:৩৭ পূর্বাহ্ন
ঘোষনা
নারায়ণগঞ্জ (৩) সোনারগাঁয়ের মাটি ও মানুষের অভিভাবক জননেতা আলহাজ আব্দুল্লাহ আল কায়সার (এম পি)  পবিত্র ঈদুল আযহার শুভেচ্ছা জানিয়েছেন মোজাম্মেল হোসেন বাবু ত্যাগের মহিমায় সমুজ্জ্বল হোক পৃথিবী পবিত্র ঈদুল আযহার শুভেচ্ছা জানিয়েছেন হুমায়ুন মিয়া পবিত্র ঈদুল আযহার শুভেচ্ছা জানিয়েছেন খান সেলিম রহমান পবিত্র ঈদুল আযহার শুভেচ্ছা জানিয়েছেন শিহাব তালুকদার লালমোহনে ভিজিএফ এর চাল বিতরণ করলে এমপি শাওন পবিত্র ঈদুল আজহার শুভোচ্ছা জানিয়েছেন সোনারগাঁ উপজেলার পিরোজপুর ইউনিয়নের চেয়াম্যান আলহাজ ইঞ্জিনিয়ার মাসুদুর রহমান মাসুম পবিত্র ঈদুল আযহার শুভেচ্ছা জানিয়েছেন ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ সোহেল রানা    রাজশাহীতে শিশু শিক্ষার্থীকে বেধড়ক পে’টা’লে’ন অধ্যক্ষ! গোলাম মওলা ফরিদপুরে ২০ টন সরকারি চাল জব্দ আটক ২

গোবিন্দগঞ্জে রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংক কাটাবাড়ী শাখা ব্যবস্থাপক আব্দুল আউয়ালের বিরুদ্ধে ঘুষ বানিজ্যে ও হয়রানির অভিযোগ

রানা ইস্কান্দার রহমান
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ২২ মার্চ, ২০২২
  • ৩৮৬ বার পঠিত

গাইবান্ধার জেলা ব্যুরো প্রধানঃ রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংক গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার কাটাবাড়ী শাখা ব্যবস্থাপক আব্দুল আউয়ালের বিরুদ্ধে ব্যাংকের গ্রাহকেরা ব্যাপক ঘুষ বানিজ্যে ও হয়রানির অভিযোগ করেছে।

অভিযোগ সুত্রে জানা গেছে, রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংক কাটাবাড়ী শাখা ব্যবস্থাপক আব্দুল আউয়াল ২০২০ সালের ১০ মার্চ কাটাবাড়ী শাখায় যোগদান করেন। তিনি যোগদান করার পর থেকে সিসি, কৃষি ও শস্যঋণ সহ বিভিন্ন ঋণ গ্রাহকেরা ব্যাংক থেকে নিতে গেলে অগ্রিম ঘুষের টাকা দিতে হয়, না দিলে কাগজপত্র সঠিক থাকলেও সে আর ওই ব্যাংক থেকে ঋণ নিতে পারে না। এমনি ভুক্তভোগি ব্যাংকের গ্রাহক কামদিয়া ইউনিয়নের পুয়াগাড়ী গ্রামের মৃত-রইচ উদ্দিনের ছেলে বকুল ইসলাম ২০০৬ সালে ওই ব্যাংক থেকে ব্যবসার জন্য সিসি ঋণ গ্রহণ করেন। বিগত ২০২১ সালের জুন মাসে তিনি সিসি ঋণ সম্পূর্ন পরিশোধ করেন। কিন্তু শাখা ব্যবস্থাপক আব্দুল আউয়াল ওই ঋণের মর্গেজের প্রয়োজনিয় কাগজপত্র ফিরে দিতে মোটা অংকের ঘুষ দাবী করে বকুল ইসলামের কাছে। এ কারণে ঋণ পরিশোধের ৯ মাস অতিবাহিত হতে চললেও এখনোও তার কাগজপত্র ফিরে দিতেছেন না। ওই ইউনিয়নের চিয়াঁরগাও গ্রামের মৃত-আবুল হোসেন মন্ডলের ছেলে মৎস্য ব্যবসায়ী সোলায়মান আলী ২০১৫ সালে ব্যাংক থেকে ৩ লাখ টাকা সিসি ঋণ গ্রহণ করেন। ২০২১ সালের জুন মাসে তিনি ঋণটি পরিশোধ করে বৃদ্ধির জন্য আবেদন করতে চাইলে লাখে ১০ হাজার টাকা ঘুষ দাবী করেন। তার দাবীকৃত ঘুষের টাকা দিতে না পারায় তিনি ঋণ সম্প্রসারণ করতে পারেননি। একই উপজেলার সাপমারা ইউনিয়নের পন্ডিতপুর গ্রামের মৃত-আহম্মদ আলীর ছেলে আফজাল হোসেন গুবাদিপশুর খামারের উপর ঋণ নিতে চাইলে লাখে ৫ হাজার টাকা ঘুষ দাবী করেন। তিনি ওই ঘুষের টাকা দিতে অস্বীকৃতি জানালে পরে লাখে ৩ হাজার টাকা ঘুষ দিয়ে শস্য ঋণ তাকে নিতে হয়। ওই ইউনিয়নের মদনপুর গ্রামের মৃত-ছাবেদ আলীর ছেলে আমিরুল ইসলাম ও তার স্ত্রী মিলে গরুর খামারের উপর ঋণ নিতে চাইলে তার কাছে ৪০ হাজার টাকা ঘুষ দাবী করেন। পরে ইসলামপুর বাজারের জৈনক জাহিদুল ইসলাম জাহিদ নামে এক শিক্ষকের মাধ্যমে ২০ হাজার টাকা ঘুষ নিয়ে ১ লাখ ৭৫ হাজার টাকার কৃষি ঋণ তাকে নিতে হয়। এই ঘুষ বানিজ্যকে কেন্দ্র করে ব্যাংকের চেইন অব কমান্ড ভেঙ্গে গেছে বলেও ব্যাংকের স্টাফদের অভিযোগ।

এ ব্যাপারে রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংক কাটাবাড়ী শাখা ব্যবস্থাপক আব্দুল আউয়ালের কাছে জানতে চাইলে, তিনি এসব অভিযোগ অস্বীকার করলেও ব্যাংকের চেইন অব কমান্ড ভেঙ্গে যাওয়ার বিষয়টি স্বীকার করেন।

রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংক কাটাবাড়ী শাখা ব্যবস্থাপক আব্দুল আউয়ালের এসব দূর্নীতির অভিযোগের বিষয়ে গাইবান্ধা জেলা শাখার ডি-জিএম বেলাল হোসেনকে মুঠোফোনে অবহিত করলে তিনি বলেন, দ্রত তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর..
এই পত্রিকার সকল সংবাদ, ছবি ও ভিডিও স্বত্ত্ব সংরক্ষিত © ২০২১ দৈনিক মাতৃজগত    
কারিগরি সহযোগিতায়ঃ Bangla Webs
banglawebs999991