মঙ্গলবার, ২৯ নভেম্বর ২০২২, ১০:১০ অপরাহ্ন
ঘোষনা
হাবিবুল্লাহ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের উদ্যোগে প্রতিবাদ জনসভা একজন আদর্শ নেতা জহিরুল ইসলাম বাবু সাতক্ষীরা এসএসসি পরিক্ষায় অকৃতকার্য হওয়ায় ছাত্রী’র আত্মহত্যা মা কে ফেলে দিয়েছে সন্তানেরা, ভিক্ষা করে যাদের লালন পালন করেছিলেন। সাংবাদিক আজহারুল ইসলাম সাদী’র কন্যা এ গ্ৰেড পেয়েছেন সে সকলের নিকট দোয়া প্রার্থী! উন্নয়নের ধারা যাতে অব্যাহত না থাকে সেজন্য ষড়যন্ত্রকারীরা বিভিন্ন ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছে- এমপি শাওন এসআই নয়ন সহ দুই পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নিতে পিবিআই এর সুপারিশ। লক্ষ্মীপুরে ১০ টাকার জন্য মাকে কুপিয়ে হত্যা : ছেলের আমৃত্যু কারাদণ্ড লক্ষ্মীপুরে অবৈধ ইটভাটা ধ্বংস করলো ভ্রাম্যমাণ আদালত। রাজধানীর পল্লবীতে ছাত্রলীগের নতুন কমিটিতে স্হান না পেয়ে আওয়ামী লীগ নেতাদেরকে কুপিয়ে জখম করেছে

ঠাকুরগাঁও-এ শীলা বৃষ্টিতে মানুষ আহত ঘড়বাড়ি সহ ফসলের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি

মাসুদ রানা লেমন
  • আপডেট টাইম : সোমবার, ১১ এপ্রিল, ২০২২
  • ১০৪ বার পঠিত

স্টাফ রিপোর্টারঃ
ঠাকুরগাঁও জেলার রাণীশংকৈল উপজেলার নেকমরদ, রাতোর,বাংলাগড়, ফুটানি, ধামেরহাট,ভেলাই,ফরিঙ্গাদীঘি সহ ঠাকুরগাঁও,পীরগঞ্জ ও বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় ঝড়ো হাওয়ার সাথে তুমুল বেগে ঝড়বৃষ্টি ও শিলাবৃষ্টি হয়। শিলা বৃষ্টিতে মানুষ আহত ঘড়বাড়ি সহ ফসলের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

রবিবার ১০ই এপ্রিল দুপুর ২টার পর থেকে সাড়ে তিনটা পর্যন্ত এ শিলাবৃষ্টিতে আম, লিচু, ভুট্টা, মরিচ ধানসহ অন্যান্য ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে৷ রাণীশংকৈল উপজেলার রাতোর ইউনিয়নের বাংলাগড় গ্রামের বাগান মালিক আব্দুল জলিল জানান,মানুষের কাছে লিজ নিয়ে প্রায় পনেরো বিঘা জমিতে (৫০শতকে) আমের বাগান রয়েছে। বৈরী আবহাওয়ায় আমের মুকুল এমনিতেই জ্বলেগিয়ে গুটি কম ছিল, তারপর আবার আজকের এই হঠাৎ ঝড়ো হাওয়ার সাথে শিলাবৃষ্টি বাগানের আম ঝড়ে পড়ে গেছে। বাগান গুলোই আমার বেঁচে থাকার স্বপ্ন ছিল হঠাৎ শীলা বৃষ্টিতে সব স্বপ্ন শেষ গেল। গরকতগাঁও গ্রামের কৃষক আনছার আলী জানান, প্রায় পাঁচ বিঘা জমিতে বোরো ধান ও ছয় বিঘা জমিতে ভুট্টা চাষ করি। কৃষি আমার একমাত্র ভরসা, হঠাৎ ঝড়ো হাওয়া ও শীলা বৃষ্টিতে ধান, ভুট্টা সহ সব কিছুই ভেঙে চুরমার হয়ে গেছে।বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার লাহিড়ী এলাকার মরিচ চাষি ফরিদুল ইসলাম জানান, কয়েকদিন পরই মরিচ তোলার কথা ছিল। কিন্তু শিলা বৃষ্টিতে দুই বিঘা জমির মরিচ ঝড়ে পড়েছে। প্রতিবছর মরিচ বিক্রি করেই তিনি সংসারের সিংহভাগ খরচ বহন করেন বলে জানান তিনি।আরেক বাগান ব্যবসায়ী রাজু বলেন, প্রায় সাড়ে তিনশ গাছের আমের গুটি ও পাতা ঝড়ে গেছে। আমি একদম পথে বসে গেলাম। এর আগের শিলাবৃষ্টিতেও ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিলাম। সে ধকল সামলাতে না সামলাতেই আবারও শিলাবৃষ্টি আমার সবকিছু সর্বশান্ত করে দিয়েছে। গাছে যেসব আমের গুটি আছে সেগুলো দিয়ে কি হবে দেখি আল্লাহ পাক এর জন্য কি মঙ্গল রেখেছেন।এছাড়াও জেলার বিভিন্ন এলাকায় বড় বড় শীলা বৃষ্টির কারণে গাছপালা সহ ঘরবাড়ির টিনের চালা ফুটা হয়ে গেছে বলে জানা গেছে।বাংলাগড় গ্রামের অনেকের থাকার ঘরের সমস্ত টিনের চালা বড় বড় শীলা পাথর পড়ে ফুটা হয়ে গেছে বলে লক্ষ করা গেছে।জেলার কৃষি কর্মকর্তা আবু হোসেন জানান ঠাকুরগাঁও জেলার বিভিন্ন স্থানে শিলাবৃষ্টিতে কৃষকের অনেক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। বিশেষ করে মরিচ,ভূট্টা,ধান,আম ও লিচুর গুটিসহ আরও অন্যান্য ফসলেরও ক্ষতি হয়েছে। তবে কত হেক্টর জমিতে কি কি ফসলের ক্ষতি হয়েছে তা জানতে মাঠে কাজ করছি আমরা। পরবর্তীতে এর সঠিক হিসাব জানাতে পারবো। এদিকে রাণীশংকৈল পৌরসভা কলেজ পাড়ার মিষ্টির দোকানদার দুলু ও তার কর্মচারী নেকমরদ বাজারে দোকানরত অবস্থায় শিলা পাথরের আঘাতে আহত হয়েছেন বলে জানা যায়।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর..
এই পত্রিকার সকল সংবাদ, ছবি ও ভিডিও স্বত্ত্ব সংরক্ষিত © ২০২১ দৈনিক মাতৃজগত    
কারিগরি সহযোগিতায়ঃ Bangla Webs
banglawebs999991