মঙ্গলবার, ১৭ মে ২০২২, ০১:৩১ পূর্বাহ্ন
ঘোষনা
গাবতলীতে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে মিঠুন কর্তৃক অতর্কিত হামলা, গ্রেফতার-১ নবীনগরে পচা মাংস বিক্রির অভিযোগে কসাইকে কারাদণ্ড পাথরঘাটায় নাক-চোঁখ বিহীন দাঁত নিয়ে অস্বাভাবিক ১ শিশুর জন্ম গাজীপুরে স্বামীকে আটকে রেখে স্ত্রীকে গণধর্ষণ গাইবান্ধা সাদুল্লাপর উপজেলা তিন ইউনিয়নে ভোট গ্রহণ স্থগিত হওয়ার প্রতিবাদে বিক্ষোভ ও অবস্থান ধর্মঘাট অনুষ্ঠিত হয়। গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলায় জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষন অধিদপ্তরের পৃথক দুটি অভিযানে ৩০হাজার টাকা জরিমানা টানা ৭২ ঘন্টা বিশ্রামহীন প্রচেষ্টাও ঘুম বাদ দিয়ে অবশেষে শেষ হাসি হাসলেন ঢাকার নিউমার্কেট থানার এসআই রায়হান। জুঁইদন্ডী ইউনিয়নের বিভিন্ন সড়কের শুভ উদ্বোধন চেয়ারম্যান মাষ্টার মুহাম্মদ ইদ্রিচ ঢাকার কেরানীগঞ্জে অবৈধ গ্যাস সংযোগ নৈপথ্যের নায়ক কে এই সিরাজ? গাইবান্ধা গোবিন্দগঞ্জ উপজেলায় ৮কেজি গাঁজা সহ ১ মাদক ব্যবসায়ী আটক।

তালতলী ইউএনও’র বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার মামলা

সাইফুল্লাহ নাসির,আমতলী (বরগুনা) প্রতিনিধিঃ
  • আপডেট টাইম : সোমবার, ৭ মার্চ, ২০২২
  • ৭৩ বার পঠিত

বরগুনার তালতলী ইউএনও মোঃ কাওছার হোসেন এর বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার মামলা হয়েছে। আদালতের আদেশ অমান্য করে অন্যের জমিতে আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘর নির্মাণের অভিযোগে এ মামলা হয়েছে ।

গত বৃহস্পতিবার(০৪ মার্চ) আমতলী সহকারী জজ আদালত এ মামলা করেন বদলুর আলম বাবুল নামের এক ব্যক্তি। বিষয়টি নিশ্চিত করে বাদী পক্ষের আইনজীবী এডভোকেট মোঃ আতিকুল হক।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ কাওছার হোসেন ছাড়াও সহকারী কমিশনার ভূমি,উপজেলা ভূমি অফিসের কানুণ’গো’, সার্ভেয়ার ও বড় বড়বগী ইউনিয়নের তফসিলদারে বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার অভিযোগ আনা হয়েছে। তালতলীতে সহকারী কমিশনার না থাকায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার সহকারী ভূমি কমিশনার হিসেবে দায়িত্বে আছেন।

জানা যায়,উপজেলা বড় বগি মৌজার ৩৯৯৩ ও ৪০০০ দাগের ৪ একর কৃষি জমি ১৯৬৪-৬৫ সালে মৌলবী লতিফ ও সিদ্দিকুর রহমান কে চিরস্থায়ী বন্দোবস্ত দেয় সরকার। পরে ১৯৮১ সালে ঔ চিরস্থায়ী বন্দোবস্ত ও রেকর্ডিং জমি থেকে বদলুর আলম বাবুলসহ কয়েকজনের কাছে ২ একর ৬৭ শতাংশ বিক্রি করেন তারা । প্রায় ৪১ বছর ভোগ দখলের। চলতি বছরের জানুয়ারি মাসের শেষের দিকে তালতলী উপজেলা নির্বাহি অফিসার ওই জমিতে আশ্রায়ণ প্রকল্পের ঘর নির্মাণের জন্য নির্ধারণ করেন। কোন প্রকার নোটিশ ও উচ্ছেদের কাগজপত্র ছাড়াই প্রথমে রেকর্ডিং সম্পত্তি দিয়ে জোরপূর্বক রাস্তা নির্মাণ করেন। পরে গত ২৫ জানুয়ারি আমতলী সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে উপজেলা নির্বাহি অফিসার সহ ৫ জনের বিরুদ্ধে একটি মামলা করেন বদলুর আমল বাবুল গং। আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে লিখিতভাবে জবাব দেওয়ার জন্য ঔ ৫ জনকে বলেন। আদালতের লিখিত নোটিশ অন্য তিনজন গ্রহণ করলেও উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. কাওসার গ্রহণ করেননি। পরে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ঔ জমি দখল নিয়ে আশ্রয়ন প্রকল্পের ঘর নির্মাণের জন্য ভরাট করে। বিষয়টি বাদীপক্ষ আদালতকে জানান। আদালত ওই জমিতে অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা দেয় এবং বলেন মামলা নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত ওই জমিতে কোন প্রকার কাজ করা হবে না। আদালতের আদেশ অমান্য করে আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘর নির্মাণ শুরু করেন। পরে গত ৪ মার্চ আমতলী সহকারী জজ আদালতে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ কাওছার হোসেন ছাড়াও সহকারী কমিশনার ভূমি, উপজেমা ভূমি অফিসের কানুণ’গো’,সার্ভেয়ার ও তফসিলদারে বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার অভিযোগ করে মামলা করেন। আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে কেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার সহ সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে না কেন জানতে চাওয়া হয়।

মামলার বাদী বদলুর আলম বাবুল বলেন,আমাদের রেকর্ডিং সম্পত্তি ও সরকারি চিরস্থায়ী বন্দোবস্তের জমিতে ইউএনও কোন প্রকার নোটিশ ছাড়াই দখল নিয়েছেন। এরপরে আশ্রায়ন প্রকল্প ঘর নির্মাণ শুরু করেন। বিষয়টি আদালতে মামলা করি। আদালত অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা দেন কিন্তু তিনি সেই আদেশ মানে নাই। এ জন্য তার বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার মামলা করা হয়েছে।

বাদী পক্ষের আইনজীবী এডভোকেট মোঃ আতিকুল হক বলেন, ইউএনওর বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার মামলা দায়ের করা হয়েছে। আদালত মামলাটি আমলে নিয়েছেন। কেন আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে না জানতে চেয়ে নোটিশ করেছেন।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার অফিসার মোঃ কাওছার হোসেন বলেন, এ বিষয়ে আমি কিছু জানিনা।তালতলী ইউএনও’র বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার মামলা

সাইফুল্লাহ নাসির,আমতলী (বরগুনা) প্রতিনিধিঃ বরগুনার তালতলী ইউএনও মোঃ কাওছার হোসেন এর বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার মামলা হয়েছে। আদালতের আদেশ অমান্য করে অন্যের জমিতে আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘর নির্মাণের অভিযোগে এ মামলা হয়েছে ।

গত বৃহস্পতিবার(০৪ মার্চ) আমতলী সহকারী জজ আদালত এ মামলা করেন বদলুর আলম বাবুল নামের এক ব্যক্তি। বিষয়টি নিশ্চিত করে বাদী পক্ষের আইনজীবী এডভোকেট মোঃ আতিকুল হক।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ কাওছার হোসেন ছাড়াও সহকারী কমিশনার ভূমি,উপজেলা ভূমি অফিসের কানুণ’গো’, সার্ভেয়ার ও বড় বড়বগী ইউনিয়নের তফসিলদারে বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার অভিযোগ আনা হয়েছে। তালতলীতে সহকারী কমিশনার না থাকায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার সহকারী ভূমি কমিশনার হিসেবে দায়িত্বে আছেন।

জানা যায়,উপজেলা বড় বগি মৌজার ৩৯৯৩ ও ৪০০০ দাগের ৪ একর কৃষি জমি ১৯৬৪-৬৫ সালে মৌলবী লতিফ ও সিদ্দিকুর রহমান কে চিরস্থায়ী বন্দোবস্ত দেয় সরকার। পরে ১৯৮১ সালে ঔ চিরস্থায়ী বন্দোবস্ত ও রেকর্ডিং জমি থেকে বদলুর আলম বাবুলসহ কয়েকজনের কাছে ২ একর ৬৭ শতাংশ বিক্রি করেন তারা । প্রায় ৪১ বছর ভোগ দখলের। চলতি বছরের জানুয়ারি মাসের শেষের দিকে তালতলী উপজেলা নির্বাহি অফিসার ওই জমিতে আশ্রায়ণ প্রকল্পের ঘর নির্মাণের জন্য নির্ধারণ করেন। কোন প্রকার নোটিশ ও উচ্ছেদের কাগজপত্র ছাড়াই প্রথমে রেকর্ডিং সম্পত্তি দিয়ে জোরপূর্বক রাস্তা নির্মাণ করেন। পরে গত ২৫ জানুয়ারি আমতলী সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে উপজেলা নির্বাহি অফিসার সহ ৫ জনের বিরুদ্ধে একটি মামলা করেন বদলুর আমল বাবুল গং। আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে লিখিতভাবে জবাব দেওয়ার জন্য ঔ ৫ জনকে বলেন। আদালতের লিখিত নোটিশ অন্য তিনজন গ্রহণ করলেও উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. কাওসার গ্রহণ করেননি। পরে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ঔ জমি দখল নিয়ে আশ্রয়ন প্রকল্পের ঘর নির্মাণের জন্য ভরাট করে। বিষয়টি বাদীপক্ষ আদালতকে জানান। আদালত ওই জমিতে অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা দেয় এবং বলেন মামলা নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত ওই জমিতে কোন প্রকার কাজ করা হবে না। আদালতের আদেশ অমান্য করে আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘর নির্মাণ শুরু করেন। পরে গত ৪ মার্চ আমতলী সহকারী জজ আদালতে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ কাওছার হোসেন ছাড়াও সহকারী কমিশনার ভূমি, উপজেমা ভূমি অফিসের কানুণ’গো’,সার্ভেয়ার ও তফসিলদারে বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার অভিযোগ করে মামলা করেন। আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে কেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার সহ সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে না কেন জানতে চাওয়া হয়।

মামলার বাদী বদলুর আলম বাবুল বলেন,আমাদের রেকর্ডিং সম্পত্তি ও সরকারি চিরস্থায়ী বন্দোবস্ত

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর..
এই পত্রিকার সকল সংবাদ, ছবি ও ভিডিও স্বত্ত্ব সংরক্ষিত © ২০২১ দৈনিক মাতৃজগত    
কারিগরি সহযোগিতায়ঃ Bangla Webs
banglawebs999991