শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪, ০৫:১৫ পূর্বাহ্ন
ঘোষনা
হামলা করে আসামি ছিনতাই, কৃষকলীগ কেন্দ্রীয় নেত্রীসহ আটক ১৫ আন্তঃজেলা প্রতারক চক্রের ২ সদস্য গ্রেফতার  কোটা বিরোধী আন্দোলনে যারা যায় তাদের ৯০% রাজাকারের সন্তান -নিখিল  ডিরেক্টরস গিল্ডের ২৩তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন ধামইরহাট উপজেলা ডিজিটাল প্রেসক্লাবের উদ্যোগে এক সম্বর্ধনা অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে  রাজশাহীতে নারী ও শিশুর প্রতি সহিংসতা প্রতিরোধে মতবিনিময় সভার সমাপনী  সাংবাদিকদের সাথে নবাগত পুলিশ সুপার এর মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত যশোরের বেনাপোল সীমান্তে ২ কেজি ১০০ গ্রাম স্বর্ণর বারসহ পাচারকারী লিমন হোসেন (৩০)আটক হয়েছে  রাজশাহী মহানগরীর শিরোইল ঢাকা বাসস্ট্যান্ড থেকে ২২ জুয়াড়িকে গ্রেপ্তার  শাহজাদপুরে অস্ত্রসহ ডাকাত দলের সদস্য গ্রেপ্তার 

বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গবন্ধুকন্যার অনুগামী মানবকল্যাণে সমাজ পরিবর্তনে একজন রাজনীতিকের স্বপ্ন ও লক্ষ্য- প্রকৌশলী মোহাম্মদ মনিরুল ইসলাম

মোঃ জহুরুল ইসলাম কুষ্টিয়া জেলা প্রতিনিধিঃ
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ২৪ অক্টোবর, ২০২৩
  • ১৩৩ বার পঠিত

বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গবন্ধুকন্যার অনুগামী মানবকল্যাণে সমাজ পরিবর্তনে একজন রাজনীতিকের স্বপ্ন ও লক্ষ্য- প্রকৌশলী মোহাম্মদ মনিরুল ইসলাম

মোঃ জহুরুল ইসলাম
কুষ্টিয়া জেলা প্রতিনিধিঃ

এই বিশ্বব্রহ্মাণ্ডে সৃষ্টিকর্তা ১৮ হাজার মকলুকাত সৃষ্টি করেছেন, তার মধ্যে একমাত্র দৃশমান মানব জাতির কর্মের হিসাব তিনি নিবেন। সেই কারণে প্রতিটি মানুষের কৃতকর্মের অনুলিপি আলাদা। অর্থাৎ প্রতিটি ব্যক্তির হিসাব সম্পূর্ণ পৃথক। পার্থিব জীবনে ভালোবাসার বন্ধনে কতনা প্রিয়জন আছে সবার। কিন্তু পাপ পুণ্যের হিসাব একান্ত নিজের, করো সাথে তা শেয়ারযোগ্য নয় ।
সততার শৃঙ্খলে দেশপ্রেম আর মানব সেবাই আল্লাহর সন্তুষ্টির অন্যতম বাহন । উত্তম মুসলিম সে, যার জবান আর হাত দ্বারা মানুষ উপকৃত হয় । আর তাই প্রতিটি মানুষের উচিত সুশিক্ষায় উচ্চ শিক্ষিত হয়ে নিজকে আলোকিত মানুষ হিসাবে গড়ে তোলা এবং সেই সাথে স্বীয় পরিবারকেও আলোকিত করা অর্থাৎ নিজের পরিবারের ভালো থাকার দ্বায়িত্ব নেয়া। এরপর সামর্থ্য অনুযায়ী নিকটজন, প্রতিবেশীদের জন্য সহযোগিতার হাত বাড়ানো অতীব দ্বায়িত্বের মধেই বর্তায়।
আরও বড় পরিসরে মানুষের কল্যাণে কাজ করতে হলে প্রয়োজণ যৌথ উদ্যেগ বা একটা সাংগঠনিক প্ল্যাটফর্ম। গণতান্ত্রিক নিয়মে স্বীয় মাতৃভূমির কল্যাণে বর্তমান বিশ্ব সমাজ ব্যবস্তায় আসম্প্রদায়িক চেতনার একটি রাজনৈতিক সংগঠনের ছোট বা বড় পরিসরে নেতৃত্বের গুরুত্ব অপরিসীম। ছাত্র জীবন থেকেই বাঙ্গালী জাতির পিতা, হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের আদর্শ লালন করে তা বাস্তবায়নে স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিটি ক্ষেত্রে সরব ছিলাম।
বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে স্বৈরাচার এরশাদ বিরোধী আন্দোলন অংশ গ্রহণ থেকে বিএনপি – জামায়াত এর দেশ ও স্বাধীনতা বিরোধী চক্রান্ত রুখে দিতে সকল আন্দোলন সংগ্রামে অংশ গ্রহণ করেছি। ১/১১ এর ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে আমাদের দলীয় কিছু সুবিধাবাদী নেতার চক্রান্ত রুখে দিতে তৃণমূলের কর্মীদের ঐক্যবদ্ধ করেছি। প্রমাণ করেছি বাংলাদেশ আওয়ামীলীগকে নেতৃত্ব দিতে জননেত্রী শেখ হাসিনার বিকল্প নেই।
মহান আল্লাহর অসীম ইচ্ছায় ধীরে ধীরে ব্যবসার প্রসার হতে থাকে। তখন মনে হলো আমার নিকটজনের জন্য আর আমার শিকড় আমার গ্রামের জন্য, পিছেয়ে পড়া গ্রামবাসীর জন্য কিছু করতে হবে। ওদের পড়াশুনা, সামাজিক উন্নয়নে সাহায্য করতে হবে। সেইসব চেতনা থেকে স্বীয় ব্যবসার পাশাপাশি গ্রামের মানুষের উন্নয়নে কাজ করতে গিয়ে মনে হলো একজন মানুষ যতই সামর্থ্যবান হোক না কেন তার একার পক্ষে সমাজের সকল সমস্যার সমাধান করা অসম্ভব । প্রয়োজন যৌথ উদ্যোগ, একটা গণতান্ত্রিক রাজনৈতিক প্ল্যাটফরমের অংশীজন হওয়া। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আর্দশে অনুপ্রেরণায় বিগত ১৩ বছর ধরে অসম্প্রদায়িক ও মুক্তিযুদ্ধের আদর্শের সংগঠন শহীদ শেখ রাসেল স্মৃতি ফাউন্ডেশন, কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতির দায়িত্ব পালন করছি রাজনৈতিক দুর্বৃত্তায়ন সুন্দর সমাজ ব্যবস্থার অন্যতম প্রধান অন্তরায়। ব্যক্তি কেন্দ্রিক রাজনীতি রাজনৈতিক দুর্বৃত্তায়নের অনুঘটক; যার মূলৎপাঠন করতে না পারলেও প্রতক্ষ্য ও পরোক্ষ সাংগঠনিক, প্রশাসনিক ও সামাজিক আন্দোলনের মাধমে এর লাগাম টেনে ধরার চেষ্টা করেছি সফলতার সাথে। ২০০১-০৬ সালের বিএনপি জামায়াত জোট সরকারের দুঃশাসন – অপশাসন, বিনাদোষে দৌলতপুর আওয়ামী পরিবারের নেতা-কর্মীদের মামলা হামলা অপরাজনীতিক চর্চা ছিল অবর্ণনীয়। কিন্তু ধারাবাহিক দীর্ঘ প্রায় ১৫ বৎসরের আওয়ামীলীগ সরকার চলমান। আমরা অতীত এক বিন্দু ভুলে না গেলেও জোট সরকারের প্রতিহিংসার রাজনীতি প্রতিষ্ঠা করিনি। আমরা একটি রাজনৈতিক সহ-অবস্থান পরিবেশ গড়ে তুলেছি। যার ফলশ্রুতিতে সাধারণ মানুষের আস্থা বেড়েছে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের উপর, জননেত্রী শেখ হাসিনার উপর।
আমি মনে করি, একজন মানুষ যদি উচ্চশিক্ষায় সু-শিক্ষিত হয়ে সৎভাবে স্বীয় উদ্যোগী কর্ম পরিক্রমায় সফলতার মাধমে সফল উদ্যেগক্তার স্বাক্ষর রাখতে পারে, সেই নিকট ভবিষ্যতে জাতি গঠনে ভূমিকা রাখার দাবীদার। জাতি গঠনে একজন আইন প্রণেতার ভূমিকা অপরিহার্য, যার থাকা উচিত উচ্চ সুশিক্ষা, পেশাগত দক্ষতা, সফল উদ্যোক্তা, সততা, ধর্মীয় মূল্যবোধ, দেশপ্রেম, মানব সবায় আল্লাহর নৈকট্য প্রাপ্তির অভিলাষ। এমন ব্যক্তিত্ব জনগণের সত্যিকার জনপ্রতিনিধিত্ব আর অভিবাবকের দাবীদার দৌলতপুর উপজেলার মানুষের কল্যাণে গড়ে তুলেছি শহীদ শেখ রাসেল স্মৃতি ফাউন্ডেশন, দৌলতপুর উপজেলা শাখা, যা আজ অত্র এলাকার হত দরিদ্র মানুষের আলোকবর্তিকা, মুক্তির বাহন । যার চালকের আসনে থাকতে চাই জীবন অবদি ইনশাআল্লাহ । দৌলতপুর আওয়ামী পরিবারের সকল নেতাকর্মী, সাধারণ মানুষ কুষ্টিয়া-১ দৌলতপুর আসনের আরো অধিকতর আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন ও সুশিক্ষার সুবিস্তারে আধুনিকায়ণের লক্ষ্যে এগিয়ে যাওয়ার জন্য আমাকে অনুপ্রাণিত করছে। এটাই আমার বড় প্রাপ্তি ও অনুপ্রেরণা তাই আমার বিশ্বাস দৌলতপুরের মানুষের কল্যাণে আমার প্রাণপ্রিয় নেত্রী, বাংলাদেশের সফল প্রধানমন্ত্রী আমাকে বড় কোনো দ্বায়িত্ব দেন, তা যথাযথ পালন করতে শতভাগ প্রস্তুত ইনশাআল্লাহ্।।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর..
এই পত্রিকার সকল সংবাদ, ছবি ও ভিডিও স্বত্ত্ব সংরক্ষিত © ২০২১ দৈনিক মাতৃজগত    
কারিগরি সহযোগিতায়ঃ Bangla Webs
banglawebs999991