সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ০৫:৩১ অপরাহ্ন

সহিংস পরিস্থিতির হাত থেকে বাঁচলো গাবতলী এলাকাবাসী

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম : শুক্রবার, ১০ মে, ২০২৪
  • ৫২ বার পঠিত

 

মোহাম্মদ মাহবুব উদ্দিন:   গত ১০/১৫ দিন যাবত গাবতলী সংলগ্ন এলাকার জনগণের মধ্যে চাপা ক্ষোভ ও উত্তেজনা বিরাজ করছিলো , বিশ্বস্ত সূত্রের তথ্য মতে জানা যায় গাবতলী মাজার রোড থেকে শুরু করে পর্বত সিনেমা হল পর্যন্ত প্রায় ১০-১২টি আবাসিক হোটেল রয়েছে । দুই তিনটি বাদে প্রায় সবগুলো আবাসিক হোটেলেই অনৈতিক কাজ চলে আসছিল , যদিও এতদিন তা নীরবে হলেও কিন্তু সাম্প্রতিককালে তা সরব হয়ে ওঠে, জানা যায় প্রতিটি হোটেলের পাঁচ সাতজন করে দালাল নিয়োগ করা আছে , তারা বিভিন্ন এলাকা থেকে আগত যাত্রীসহ পথচারী থেকে শুরু করে বিভিন্ন লোকদেরকে ডাকাডাকি করে এবং হোটেলে বিভিন্ন ধরনের নারীদের লোভ দেখিয়ে নিয়ে আসে আর ধীরে ধীরে এর প্রভাব গাবতলীর আশেপাশে আবাসিক এলাকায় ছড়িয়ে পড়ছিলো এ কারণে এলাকার কিশোর যুবক বৃদ্ধ সকলের মধ্যে চাপা ক্ষোভ ও উত্তেজনা বিরাজ করছিলো তারই ফলশ্রুতিতে গত ৩রা মে বাগবাড়ী বারআনী শাহী মসজিদে একটি সভা অনুষ্ঠিত হয় সেই সভায় বলা হয় আজ ১০ই মে পূর্ণাঙ্গ সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে এবং ৯ নং ওয়ার্ড তথা গাবতলী বাস টার্মিনাল থেকে আবাসিক হোটেল গুলো উচ্ছেদ করা হবে , তারই অংশ হিসাবে আজ জুম্মার নামাজের সময় ৯ নং ওয়ার্ডের বিভিন্ন এলাকার জনসাধারণ বাগবাড়ি বারআনী শাহী মসজিদে উপস্থিত হয় এছাড়া স্থানীয় ৯ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মুজিব সারোয়ার মাসুম , এডিসি জামিলুর রহমান , দারুস সালাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা – নজরুল ইসলাম , মসজিদের সভাপতি, লুৎফর রহমান , সাধারণ সম্পাদক- রহিম খান , বিশিষ্ট ব্যবসায়ী নবীউল্লা বাবু , নাসির মহাজন , আমির হোসেন খান , আজিজুর রহমান টাইগার , আজম খান , হাপ্পু খান , মো: সালাউদ্দিন , আইয়ুব আলী , মিলন খান , ফরহাদ, সাইদুল ,আবু তালেব, ইকবাল , শিমুল , আলী নুর , হাসান , কবির উপস্থিত ছিলেন।বক্তব্যে এডিসি জামিলুর রহমান বলেন আমরা ইচ্ছে করলেই একটি বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দিতে পারি না , তবে সেখানে যদি কোন অনৈতিক কাজ চলে সাধারণ জনগণকে নিয়ে আমরা এর প্রতিরোধ করতে পারি , আর দারুস সালাম থানা এলাকায় কোন মাদক সন্ত্রাস বা হোটেলে অবৈধ ব্যবসা কখনোই প্রশ্রয় দেওয়া হবে না।

স্থানীয় ৯ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মুজিব সারোয়ার মাসুম বলেন আমি প্রতিটি হোটেল মালিক কে আলাদা আলাদা চিঠি পাঠিয়েছি এবং অবিলম্বে তাদের এই অনৈতিক কার্যক্রম বন্ধ করার জন্য নির্দেশ দিয়েছি আশা করি অবিলম্বে তারা ভালো পথে আসবে।
দারুস সালাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নজরুল ইসলাম বলেন আপনারা এখানে এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তি উপস্থিত রয়েছেন আপনাদের জানমালের নিরাপত্তা দেওয়াই আমাদের দায়িত্ব এলাকায় কোন কিশোর গ্যাং , মাদক আস্তানা অথবা যেকোনো সন্ত্রাসী কর্মকান্ড সমূলে উৎপাটন করা হবে , পরিশেষে তারা এই সিদ্ধান্তে উপনীত হয় যে দারুস সালাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নজরুল ইসলাম তার অফিসে স্থানীয় সকল আবাসিক হোটেল মালিকদের ডেকে ভালোভাবে বুঝিয়ে দেওয়া হবে যাতে তারা অনৈতিক কাজ বাদ দেন , যদি তারা কথা না শুনে তবে সকলের মিলিত প্রচেষ্টায় তাদেরকে প্রতিহত করা হবে ।
এই সিদ্ধান্তকে সবাই স্বাগত জানান এবং সভার সমাপ্তি ঘোষনা করেন মসজিদের সভাপতি লুৎফর রহমান।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর..
এই পত্রিকার সকল সংবাদ, ছবি ও ভিডিও স্বত্ত্ব সংরক্ষিত © ২০২১ দৈনিক মাতৃজগত    
কারিগরি সহযোগিতায়ঃ Bangla Webs
banglawebs999991