শিরোনাম :
আমি শেষ বয়সে ডালবুগঞ্জ ইউনিয়ন বাসীর পাশে থাকতে চাই, অধ্যক্ষ দেলওয়ার হোসেন শিকদার কলাপাড়ায় নব-নির্বাচিত মেয়রকে সংবর্ধনা রাজশাহী মহানগরীতে গোয়েন্দা পুলিশের অভিযানে লাশ বহনকারী গাড়ীর চাঁদাবাজ দালাল চক্রের সদস্য গ্রেফতার জেলা গোয়েন্দা শাখা (ডিবি), কর্তৃক ৭০০ পিচ ইয়াবা ট্যাবলেটসহ আটক- ০১ কেশবপুর পৌর নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠ ভাবে সম্পন্ন হবে-সিইসি পাবনার চাটমোহরে প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘর দেওয়ার আশ্বাসে ইউপি চেয়ারম্যানের অর্থ আদায়ের অভিযোগ ভালুকায় মোটরসাইকেল ও যাত্রিবাহী বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে ২ জন নিহত সাংবাদিক বোরহান হত্যার প্রতিবাদে কু্ষ্টিয়া প্রেসক্লাব কেপিসি’র সমাবেশ ও বিক্ষোভে শেখ হাসিনা সরকারের ক্ষমতার আমলে দেশে ক্রীড়া ক্ষেত্রে ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে- এমপি শাওন ভ্রমণ পিপাসুদের অন্যতম আকর্ষণের জায়গা কুয়াকাটার সমুদ্র সৈকত মহিপুর প্রেসক্লাবের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপিত কলাপাড়ায় করোনা টিকার ফ্রি রেজিষ্ট্রেশন করছে রয়েল ব্যাচ ২০০০ কলাপাড়া পৌরসভার নির্বাচনে নৌকা ৪১৪ ভোট বেশি পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন বিপুল চন্দ্র হাওলাদার, পটুয়াখালী জেলার কলাপাড়া পৌরসভায় আজ ভোটারদের ব্যাপক উপস্থিতিতে শান্তিপূর্ণ পরিবেশ খাদ্যপণ্যসহ চালের মূল্য বৃদ্ধিতে বঙ্গবন্ধু পেশাজীবী পরিষদের উদ্বেগ প্রকাশ আজ ১৪ ফেব্রুয়ারি, ভ্যালেন্টাইনস ডে বা ভালোবাসা দিবস। দোহারে বিডি ক্লিন ও ব্লাড ব্যাংকের ব্যতিক্রমী অনুষ্ঠান। কলাপাড়া নির্বাচন উপলক্ষে পটুয়াখালী জেলা পুলিশের ব্রিফিং ভোট কেন্দ্রে সাংবাদিক নির্যাতন-হয়রাণীকে না বলুন রাজশাহী কর ভবনে বঙ্গবন্ধু কর্ণার ও লাইব্রেরীর উদ্বোধন আরেকটি রাজশাহী বাসীর সবার জন্য সৌন্দর্য যোগ হলো সড়ক বাতি সাতক্ষীরা পৌর নির্বাচনে জুম্মার নামাজান্তে নৌকায় ভোট চাইলেন আসাদুজ্জামান বাবু শাহজাদপুরে ১,শ ৫০জন দুস্হ পরিবারের মাঝে কাপড় ও চাদর বিতরণ করলেন প্রফেসর মেরিনা জাহান কবিতা সাতক্ষীরা পৌর নির্বাচনে নৌকা প্রতীককে বিজয়ী করতে সৈয়দ আমিনুর রহমান বাবু’র নেতৃত্বে গণসংযোগ বরগুনায় পুলিশ সুপার ব্যাডমিন্টন টুর্নামেন্ট লালমোহনে প্রতিপক্ষের হামলার ঘটনায় মামলা, গ্রেফতার-৯ মঠবাড়িয়ায় গাঁজা ও ইয়াবা সেবনকারী ৩ যুবক আটক সাতক্ষীরা জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে পৌর নির্বাচনের ৩৭ টি ভোট কেন্দ্র পরিদর্শন শীতার্থদের মাঝে শীত বস্ত্র বিতরণ করলেন চাটখিল উপজেলা প্রেসক্লাব মঠবাড়িয়ায় টিকিকাটা সাঈফী নগর মাদ্রাসায় অভিভাবক সমাবেশ মাদক বিরোধী অভিযান চলছে জেলা পুলিশ যশোরের মাদক বিরোধী বিশেষ অভিযান চলমান। আইন শৃঙ্খলা সক্ষমতা বাড়া‌তে বাংলাদেশ পুলিশে যুক্ত হচ্ছে দুটি অত্যাধুনিক হেলিকপ্টার সাতক্ষীরায় নৌকার প্রার্থীকে বিজয়ী করতে প্রার্থীতা প্রত্যাহার করলেন কাউন্সিলর প্রার্থী রেজাউল সপ্না হত্যার বিচার চাই সপ্নার পরিবার বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের ৪৮তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত চৌহালীর উপজেলার চেয়ারম্যানের করোনার ভ্যাকসিনের টিকা নেওয়ার অভিনয় ভাইরাল। বরগুনায় স্বামীকে খুন, ৮ মাস পর হত্যারহস্য উদঘাটন,স্ত্রী ও পরকীয়া প্রেমিক গ্রেফতার জামালপুর পৌর নির্বাচনে নৌকা প্রতীকের বিজয় নিশ্চিত করার লক্ষে যুবলীগের যৌথ কর্মী সভা অনুষ্ঠিত লালমোহনে শিশু বিয়ের কারণ, প্রভাব ও প্রতিকার নিয়ে এ্যাডভোকেসি সভা কেন্দ্রীয় যুবলীগের সাধারণ সম্পদকের আগমন উপলক্ষে লক্ষীপুর জেলা ভিবিন্ন সাজে-সজ্জিত সন্দ্বীপে এসডিআই এর উদ্যোগে জেন্ডার সমতা ও নারীর ক্ষমতায়নে সরকারী পরিষেবার ভূমিকা নিয়ে সংলাপ অনুষ্ঠিত সাংবাদিক বোরহান উদ্দিন মুজাক্কির’র হত্যাকারীদের চিহ্নিত করে শাস্তির দাবীতে প্রতিবাদ সমাবেশ ও মানববন্ধন করেছে বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম চট্টগ্রাম জেলা এবং এর সাথে একাত্মতা প্রকাশ করেন চট্টগ্রাম রিপোর্টার্স এসোসিয়েশন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের উদ্যোগে ১০ নং উত্তর কাট্টলী ওয়ার্ডে দুস্ত ও প্রতিবন্ধির মাঝে কম্বল বিতরণ করা হয় মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয় বিশিষ্ট ভাষা সৈনিক আল্লামা হাশেমী রহমতুল্লাহি এর জীবনী

হারিয়ে যাচ্ছে গ্রাম্য বাংলার শত শত বছর মাছ শিকারের সেই ঐতিহ্য!

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ১৬ ফেব্রুয়ারী, ২০২১
  • ৩৯ বার পঠিত

হৃদয় হোসেন প্রধানঃ সারা বাংলার ঐতিহ্য এবং ইতিহাস প্রর্যালোচনা করে জানা যায় যে,আদি যুগ থেকে দেশের আঁশি শতাংশ গ্রাম বাংলার মানুষের জীবন জীবিকার উৎস ছিলো কৃষি ও মৎস্য কেন্দ্রিক।তখন গ্রাম বাংলার সাধারন মানুষ তারা সারা বছরই নানা ভাবে মৎস্য আহরন করিতেন।

সে সময় তাদের সংসারের নারী পুরুষ সকল সদস্য মাছ শিকারে পরিবার কে সাহায্য করিতেন।তখন নদ নদীতে মাছ শিকারের পাশাপাশি তারা তাদের বাড়ির পাশে পুকুর বা বাড়ির কাছাকাছি পার্শ্ববর্তী জমিকে মাটি টেকে বড় বড় গর্ত করে রাখিত। যাতে বর্ষার সিজনের পর তারা যাতে বাংলামাস পৌষের দিক থেকে শুরু করে গুটা বর্ষার আগ মূহুর্ত প্রর্যন্ত মাছ দরে খেতে পারেন সে জন্য তারা এ ব্যবস্থা করিতেন।

এতে করে বর্ষাকালে তাদের জমিতে গর্ত করা স্থাতে মাছ এসে বসবাস করিতে থাকে,, সে জন্য গ্রাম্য বাংলার কৃষি প্রেমি মানুষেরা ও যাতে সেখানে মাছ অবাধে বাসবাস করিতে পারে কিছু গাছের ঢাল ঝোপ আকারে রেখে দিত।যাতে করে বর্ষার পানি যাবার সাথে সাথেই সেখানে নানা প্রজাতির মাছে থেকে যায়। আর সেখান থেকে আস্তে আস্তে বর্ষা সারার আগ প্রর্যন্ত সারা বছর মাছ দরে খেতেন।

কালের বিবর্তনে এখন আর বাংলার সেই চির চিনা রুপালীময় সৌন্দর্যের দৃশ্য চখে পরেনা।আর দেখা যায় না নারী, বুড়,শিশু কিশোর সকলে মাছ শিকার করিতেন এ সময়।আমাদের রুপালী গ্রাম বাংলা চিরোচিনা সেই রুপ এখন দেখিনা।

আদিকাল থেকে আস্তে আস্তে নানা সময় বিভিন্ন বিপ্লবের পর দেশ এখন এ পরিবেশে। আমরা ও চাই দেশ উন্নত হক, কিন্তু আমাদের বাংলার চিরোচেনা সে গৌরর্ব,ঐতিহ্য, ইতিহাস মুছে না।

এই বাংলার রুপ যৌবন ধরে রেখেছে গ্রাম বাংলার যেসব নদ নদী খাল বিল সেগুলো আর এখন আগের যৌবনে নেই! কোনো কোনো নদ, নদী তাদের সারা অঙ্গ যরানো রুপ যৌবন হারিয়েছে আবার কোনোটি একেবারেই হারিয়ে ফেলেছে তাদের অস্থিত।সে জন্য দায়ি শহরের হাওয়া গ্রাম বাংলার আনাচে কানাচে প্রভাব ফেলা।

আমরা ও চাই দেশ উন্নত হক,সে জন্য সঠিক নীতিমালার রূপরেখার মাধ্যমে হক।আমাদের গ্রাম গুলোতে এখন চখ পরেছে রাক্ষসে কিছু শিল্পকারখানা নামে কোম্পানির মানুষ নামে অমানুষ ব্যক্তিদের।আর তারা কি করিতেছে তারা কৃষি জমি, মৎস্য চাষের বা আহরনের জমিগুলোর উপর। আর সে জন্য আমাদের রুপালী বাংলার ঐতিহ্য এবং ইতিহাসের সেই চিরচেনা রুপ যৌবন হারিয়ে যাচ্ছে। আমরা হারাচ্ছি শত শত কৃষি চাষে আবাদি কৃত কৃষি এবং মৎস্য জমি।

ঠিক তেমনিভাবে রাক্ষসে কোম্পানি গুলোর চখ পরেছে মুন্সিগঞ্জের গজারিয়ায় দিকে।এসব কোম্পানি গুলো যেভাবে গজারিয়াতে ছড়িয়ে পরে গ্রাস করিতে মরিয়া হয়ে উঠে পরে লেগেছে, এতে করে মৎস্য, কৃষি জমি আবাদি জমি দূরের থাক। গজারিয়ায় সচেতন মহল মনে করিতেছে আগামী ২০ বছর পর গজারিয়ায় বুকে বসবাস কারি মানুষকে খুঁজে পাওয়া যাবেনা এ বেআইনি প্লানে প্রতিষ্ঠিত শিল্প কোম্পানগুলোর কারনে।

আর সে জন্য গজারিয়া বাসীর চাওয়া এসব কোম্পানির হাত থেকে তাদের কৃষি আবাদি জমি, মৎস্য জমি গুলি তাদের কবল থেকে অবমুক্তি করিতে হবে।আর এসব কোম্পানির কারনে বা দখলের কারনে হাস্য পাওয়া বা নদ নদী, খাল বিল গুলোর আগের যৌবন ফিরে পেতে সরকার বিভাগীয় প্রশাসনের সহায্য চাচ্ছেন। যাতে তারা তাদের সেই চিরচেনা গজারিয়ার নদী, নালায় বরপুর মায়াবী সুন্দরী যৌবনপূর্ণ রুপ ফিরে পায়।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Developed By Bangla Webs