শুক্রবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২২, ১১:২৭ পূর্বাহ্ন
ঘোষনা
যশোর জেলা গোয়েন্দা শাখা (ডিবি) পুলিশের সফল অভিযানে ২০০ পিচ ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার সহ গ্রেফতার-০২। পরিষদের ভিতরে আকটিয়ে মারধর, চাঁদা দাবির অভিযোগ ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে  মুক্তিযোদ্ধা দিবস উদযাপন ও শপথ গ্রহণ আওয়ামীলীগ আমলেই কৃষক তার উৎপাদিত পণ্যের ন্যায্য মূল্য পায়-এমপি শাওন দক্ষিণ ছাত্রলীগের সম্মেলনের শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি দেখছে সভাপতি পত্যাশী ডলার সিকদার নওগাঁর ধামইরহাট উপজেলার খেলনা ইউনিয়নে আতঙ্কিত ভাবে জেলেকে পিটিয়ে গুরুতর জখম সাভার থানা অসহায় পরিবার পূর্ণবাসন বহু মুখী সমিতির নাম ধারন করে চলছে ক্ষমতার অপব‍‍্যবহার বিশেষ কালিয়াকৈরে ৩টি অবৈধ করাত কল উচ্ছেদ, জরিমানা ও যন্ত্রাংশ জব্দ শ্রীমঙ্গলে চা বাগান থেকে অজ্ঞাত ব্যক্তির মৃতদেহ উদ্ধার লক্ষ্মীপুরে জমি নিয়ে মেঝো ভাইকে হত্যা ছোট ভাই গ্রেফতার।

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে প্রায় ৪০০ মামলা হয়েছে দুই বছরে

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম : বুধবার, ২৭ এপ্রিল, ২০২২
  • ৮৯ বার পঠিত

মোঃ মোজাম্মেল হোসেন বাবু মফস্বল সম্পাদকঃ
ফেসবুকে মতপ্রকাশের জন্য দুই বছরে ৪০০ মামলা
“সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে শুধু মতপ্রকাশের কারণে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে প্রায় ৪০০ মামলা হয়েছে দুই বছরে। সেন্টার ফর গভর্ন্যান্স স্টাডিজের (সিজিএস) এক গবেষণা প্রতিবেদনে এ তথ্য উঠে এসেছে।

গবেষণা প্রতিবেদনে বলা হয়, গত ২৬ মাসে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে ফেসবুককেন্দ্রিক মামলা হয়েছে ৫৬৮টি। এসব মামলায় আসামি করা হয়েছে ১ হাজার ১৭৫ জনকে। এসব মামলার মধ্যে ৩৯৯টি হয়েছে মতপ্রকাশের জন্য। এ ছাড়া হয়রানির অভিযোগে ৫১টি, আর্থিক জালিয়াতির ২৯টি এবং ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত দেওয়ার অভিযোগে ৮৫টি মামলা হয়েছে। বাকি চারটির কারণ অজানা।

” ( গতকাল শনিবার ‘অন্তহীন দুঃস্বপ্ন-বাংলাদেশের ডিজিটাল সিকিউরিটি অ্যাক্ট ২০১৮’ শীর্ষক সিজিএস আয়োজিত এক ওয়েবিনারে গবেষণা প্রতিবেদনটি প্রকাশ করা হয় “)।

যুক্তরাষ্ট্রের ইলিনয় স্টেট ইউনিভার্সিটির ডিস্টিংগুইশড প্রফেসর আলী রীয়াজের নেতৃত্বে একটি দল ২০২০ সালের জানুয়ারি থেকে চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত ২৬ মাসে দায়ের হওয়া ৮৯০টি মামলার তথ্য নিয়ে গবেষণা প্রতিবেদনটি তৈরি করে।

ওয়েবিনারে গবেষণা প্রতিবেদনটি তুলে ধরেন অধ্যাপক আলী রীয়াজ। তাতে বলা হয়, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা দায়েরের হার ক্রমে বাড়ছে। ২০২০ সালের ১ জানুয়ারি থেকে ২০২১ সালের মার্চ পর্যন্ত প্রথম ১৫ মাসে ৪২৬ মামলায় ৯১৩ জনের বিরুদ্ধে মামলা হয়। এ সময় আটক হন ২৭৩ জন। মাসে গড়ে অভিযোগ আনা হয়েছে ৬০ দশমিক ৮৬ জনের বিরুদ্ধে, আটক হন ১৮ জন। পরবর্তী ৯ মাসে ৪৬৪ মামলায় ১ হাজার ৩৩১ জনের বিরুদ্ধে মামলা হয়। এসব মামলায় আটক হন ৬০৯ জন। মাসে গড়ে অভিযোগ আনা হয়েছে ১৪৭ জনের বিরুদ্ধে, আটক হয়েছেন ৬৭ জন, মামলা হয় ৫১টির বেশি। এই সময় প্রধানমন্ত্রীর অবমাননার অভিযোগে ৯৮টি, মন্ত্রীদের অবমাননার অভিযোগে ৫১টি এবং রাজনৈতিক নেতাদের অবমাননার অভিযোগে ৭৫টি মামলা হয়েছে। অভিযোগকারীদের বড় অংশ রাজনীতিবিদ। আবার ভুক্তভোগীদের মধ্যেও রাজনীতিবিদ ও সাংবাদিকদের সংখ্যা বেশি।

অধ্যাপক আলী রীয়াজ ওটিটি ও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম নিয়ে যে প্রবিধান তৈরি হচ্ছে, তা নিয়েও উদ্বেগের কথা জানান।

সাবেক নির্বাচন কমিশনার এম সাখাওয়াত হোসেন বলেন, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের কারণে নিবন্ধ লেখার সময় তাঁকে বহু চিন্তা করতে হয়। তিনি বলেন, ‘আমি ফেসবুক ব্যবহার করি না, বেশির ভাগ ই-মেইলের জবাব দিই না। বই লিখতে গেলেও চিন্তা করতে হয়। তাই ভ্রমণকাহিনি লিখি।’

সুশাসনের জন্য নাগরিকের (সুজন) বদিউল আলম মজুমদার বলেন, কর্তৃত্ববাদী ব্যবস্থায় সরকার আইন প্রণয়ন ও প্রয়োগ করে অধিকার হরণ করে। ২০১৮ সালে কাছাকাছি সময়ে দুটি আইন হয়েছিল ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন ও নিরাপদ সড়ক আইন। তাৎক্ষণিকভাবে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের ব্যবহার দেখা গেলেও অন্য আইনটির ব্যবহার সেভাবে হয়নি।

আইনজীবী তানিয়া আমীর বলেন, রাষ্ট্রের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন হওয়া ও ধর্মানুভূতিতে আঘাতের মতো অভিযোগগুলোর ব্যাখ্যা না থাকায় অপব্যবহারের সুযোগ তৈরি হয়েছে। তিনি বলেন, ‘অন্যায় করলে যদি ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন না হয়, তাহলে সে অন্যায়ের কথা লিখলে বা বললে কেন ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন হবে?’

আর্টিকেল নাইনটিনের বাংলাদেশ ও দক্ষিণ এশিয়ার আঞ্চলিক পরিচালক ফারুখ ফয়সল বলেন, এখন নতুন দুশ্চিন্তার কারণ ওটিটিবিষয়ক নীতিমালা। এটি ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের চেয়েও কঠোর হবে। তার ওপর ডেটা প্রটেকশনের নামে জনগণের ব্যক্তিগত তথ্য হস্তগত করার চেষ্টা আছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর..
এই পত্রিকার সকল সংবাদ, ছবি ও ভিডিও স্বত্ত্ব সংরক্ষিত © ২০২১ দৈনিক মাতৃজগত    
কারিগরি সহযোগিতায়ঃ Bangla Webs
banglawebs999991