মঙ্গলবার, ২৯ নভেম্বর ২০২২, ০৮:৪৪ অপরাহ্ন
ঘোষনা
হাবিবুল্লাহ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের উদ্যোগে প্রতিবাদ জনসভা একজন আদর্শ নেতা জহিরুল ইসলাম বাবু সাতক্ষীরা এসএসসি পরিক্ষায় অকৃতকার্য হওয়ায় ছাত্রী’র আত্মহত্যা মা কে ফেলে দিয়েছে সন্তানেরা, ভিক্ষা করে যাদের লালন পালন করেছিলেন। সাংবাদিক আজহারুল ইসলাম সাদী’র কন্যা এ গ্ৰেড পেয়েছেন সে সকলের নিকট দোয়া প্রার্থী! উন্নয়নের ধারা যাতে অব্যাহত না থাকে সেজন্য ষড়যন্ত্রকারীরা বিভিন্ন ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছে- এমপি শাওন এসআই নয়ন সহ দুই পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নিতে পিবিআই এর সুপারিশ। লক্ষ্মীপুরে ১০ টাকার জন্য মাকে কুপিয়ে হত্যা : ছেলের আমৃত্যু কারাদণ্ড লক্ষ্মীপুরে অবৈধ ইটভাটা ধ্বংস করলো ভ্রাম্যমাণ আদালত। রাজধানীর পল্লবীতে ছাত্রলীগের নতুন কমিটিতে স্হান না পেয়ে আওয়ামী লীগ নেতাদেরকে কুপিয়ে জখম করেছে

রাজশাহীতে “নারী মুক্তি সংস্থা’র” সেই সুপার চিট বুলু ও তার সগযোগীদের নামে থানায় মামলা

জুয়েল আহমেদ
  • আপডেট টাইম : শুক্রবার, ১৫ এপ্রিল, ২০২২
  • ৮৩ বার পঠিত

রাজশাহী মহানগরীতে পথ শিশু ভাতার নামে কয়েক কোটি টাকা আত্মসাৎকারী নারী মুক্তি সংস্থার নির্বাহী পরিচালক মোসাঃ শাহানারা বেগম বুলু ও তার প্রধান সহযোগী মোঃ শামীম হাসান অনতু এবং তার সহযোগীদের নামে মতিহার থানায় পৃথক দু’টি মামলা দায়ের করেছেন ভুক্তভোগীরা। মামলার বাদী মোসাঃ মুক্তি বেগম ও মোসাঃ বর্ণা খাতুন। মতিহার মামলা নং-৯ ও ১০। মামলার পর থেকে পুলিশ ও র‌্যাব সদস্যরা প্রতারকদের গ্রেফতারে অভিযান শুরু করেছে। ইতি মধ্যেই বেশ কয়েকজন প্রতারকের বাড়িতে হানা দিয়েছে পুলিশ ও র‌্যাব। তবে এখন পর্যন্ত কাউকে গ্রেফতার করতে পারেন নি। গ্রেফতার এড়াতে প্রতারক শাহানারা বেগম বুলু ও তার সহযোগীরা এলাকা ছেড়ে পালিয়ে গা ঢাকা দিয়েছে বলে জানা গেছে।

মামলার বাদী বাজে কাজলা এলাকার মুক্তি বেগম ও মোসাঃ বর্ণা খাতুন জানান, মতিহার থানার শামীম হাসান অনতু, শম্পা, বর্ণা, নিপা, জলি, আখি ও তাদের বস নারী মুক্তি সংস্থার শাহানারা বেগম বুলু’র নেতৃত্বে নগরীর মতিহার থানা এলাকায় প্রচার করে ৬ হাজার ৫০০ টাকা দিলে ৩ মাস পরে তিন কিস্তিতে দেয় হবে ৪০ হাজার টাকা। তাদের এমন প্রচারণায় সরল বিশ্বসে মহানগরীর মতিহার থানা এলাকাসহ বিভিন্ন ওয়ার্ডের দিনমুজুর, রিক্সা চালক, ভ্যান চালক, বাসাবাড়িতে কাজ করা নারী, গবির, অসহায় হতদরিদ্র পরিবারের কয়েক হাজার লোকজন বুলু তা তার সহযোগীদের ৬ হাজার ৫০০টাকা করে দেয়। কিন্তু ৩মাস তো দুরের কথা ৩ বছর পেরুলেও মিথ্যা আশ্বাস ছাড়া মিলছেনা কাঙ্খিত টাকা।

শুধু তাই নয় বুলু থাকেন ঢাকায়। ফোন দিলে আজ আসছি, এক সপ্তাহ পর আসছি। ১৫ দিন পরে তোদের সবার টাকা ফেরত দেয়া হবে। এমন মিথ্যা আশ্বাস আড়াই বছর ধরে অব্যাহত রেখেছে। যাকে বলে সুপার চিট।

এদিকে বুলু প্রধান সহয়োগী মতিহার থানার ধরমপুর এলাকার মৃত হাসেম আলীর ছেলে অনতু একাই চিট করেছেন ৬২০জন গ্রহকের মোট ৪০ লাখ ৩০ হাটার টাকা। এই মাদকাশক্ত চিটের কাছে গ্রাহকরা গেলে খারাপ ব্যবহার এবং গালিগালাজ করে। এর অগে ভুক্তভোগীদের দুইজকে মারধর করেছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয়রা।

নারী মুক্তি সংস্থা” নামক প্রতিষ্ঠানটি মহানগরীর রাজপাড়া থানার চন্ডিপুর এলাকায় অবস্থিত। এই প্রতিষ্ঠানের নির্বাহী পরিচালক মোসাঃ শাহানারা বেগম (বুলু)।

নগরীর মতিহার থানার বুধপাড়া এলাকার ভুক্তভোগী মোসা: হাসি আকতার (২৫) ও কাটাখালী থানার মোহনপুর এলাকার মোসাঃ শিলা বেগম (২১) জানায়, তারা খুব গরিব মানুষ। স্বামী দিন মুজুর। গ্রাহক প্রতি ৫০০ টাকা হারে মাঠকর্মীদের দেবেন বুলু। এমন আশ্বাসে তার দুই সহযোগী হাদির মোড় এলাকার কামু ও তার বোন বুধপাড়ার এলাকার গৃহবধূ তানজিলা। তাদের কথায় সরল বিশ্বাসে হাসি ১০০ জন গ্রাহকের মোট ৬লাখ ৫ হাজার টাকা এবং শিলা ৭০জন গ্রহকের মোট ৪লাখ ৫৫ হাজার টাকা দেন বুলু, তানজিলা ও কামুর হাতে। কিন্তু তিন বছর ধরে টাকা না দিলেও দিচ্ছে মিথ্যা আশ্বাস। এদিকে গ্রহকদের অব্যাহত হুমকির মুখে তাদের জিবন অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে। এব্যাপারে তারা রাজপাড়া থানায় এবং পুলিশ কমিশনার বরাবর পৃথক দুটি অভিযোগ দায়ের করেছেন। তাতেও নেমে এসেছে বিপত্তি বুলু মুঠো ফোনে হুমকি ধামকি আর গালিগালাজ অব্যাহত রেখেছে হাসিকে। অভিযোগ তুলতে চাপ দিচ্ছে। সেই সাথে টাকা ফেরৎ দেবে না মর্মে হুমকি দিচ্ছেন তিনি।

কর্মীদের কাছ থেকে পাওয়া তথ্য আনুযায়ী রাসিক ৩০টি ওয়ার্ড এবং এর বাইরে ইউনিয়ন পর্যায়ে লোক নিয়োগ দিয়ে পথ শিশু ভাতার নামে অসংখ্য মানুষের কাছে টাকা তুলেছেন বুলুর লোকজন। গ্রহক সংখ্যা ৪হাজার মুখে বললেও এর সংখ্যা কয়েকগুন বেশি। টাকার অংকটাও হবে কয়েক কোটি টাকা। অর্থাৎ নারী মুক্তি সংস্থার নির্বাহী সম্পাদক মোসাঃ শাহানারা বেগম ও তার সহযোগীদের সুপার চিট অখ্যা দিচ্ছেন ভুক্তভোগীরা।

জানতে চাইলে নারী মুক্তি সংস্থার নির্বাহী পরিচালক মোসাঃ শাহানার বেগম (বুলু) জানান, আমি মোট ৪ হাজার গ্রহকের টাকা পেয়েছি। অনতু নিয়েছে ৬২০ জনের ৪০ লাখ ৩০ হাজার টাকা। এই ভাতার টাকা দেবে বিদেশি সংস্থা। করোনার কারনে টাকা আটকে ছিলো। তবে এখন সমস্যা নাই। রমজান মাসেই সকল গ্রহকের ভাতার টাকা পরিশোধ করা হবে। ১বছর পালিয়ে থাকার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, টাকাটা দ্রুত পাওয়ার জন্য ঢাকায় থাকছি। টাকা এ্যাকাউন্টে ঢুকলেই রাজশাহী ফিরবো বলে জানান তিনি।

মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করে মতিহার থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ আনোয়ার আলি তুহিন জানান, পথ শিশু ভাতার নামে টাকা নেয়ার বিষয়টি প্রাথমিক তদন্তে জানা গেছে। তাছাড়া এই টাকার বিষয়টিও দির্ঘদিনের। যার ফলে গরিব, অসহায় হতদরিদ্র লোকজনের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। আসামীদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে বলেও জানান ওসি।

উল্লেখ্য, গত ১০ (এপ্রিল) বেলা ১১টায় মহানগরীর তালাইমারী ঠ্রফিক মোড়ে নারী মুক্তি সংস্থার নির্বাহী পরিচালক শাহানারা বেগম বুলু, অনতু, শম্পা, বর্ণার শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন করেন শতাধিক ভুক্তভোগীরা।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর..
এই পত্রিকার সকল সংবাদ, ছবি ও ভিডিও স্বত্ত্ব সংরক্ষিত © ২০২১ দৈনিক মাতৃজগত    
কারিগরি সহযোগিতায়ঃ Bangla Webs
banglawebs999991